ঢাবির ব্যবসায় অনুষদে চান্স পেতে দরকার ধৈর্য নিয়ে নিয়মিত পড়ালেখা



11055382_924796097532738_5083427257800665063_nজন্মস্থান ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুরে স্কুল-কলেজ জীবন পার করেছি। এইচএসসি পরিক্ষা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ঢাকায় এসে এক বন্ধুর সহযোগীতায় মেসে উঠেছিলাম। ভর্তি পরিক্ষার জন্য কোচিংএর সময়ে পড়ালেখার প্রতি মনোযোগী হওয়ায় আজ আমি ঢাবির মার্কেটিং বিভাগের ছাত্র।

মফস্বলে পড়ালেখা করে যেভাবে ঢাবির ছাত্র হলাম

আমার ছোটবেলা থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন ছিল এবং সেই স্বপ্ন বুননের প্রতিটি ধাপে অনেক বেশি অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিল আমার বাবা-মা।  এরপর কিছু বড়ভাইয়ের অবদান স্বীকার করতেই হয়। ভর্তি পরিক্ষার জন্য আমি নয়টা বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বমোট চৌদ্দটা ইউনিটে ফরম কিনে ছিলাম এর মাঝে তিনটিতে পরিক্ষা দেওয়ার পর আর দেওয়া হয়নি কারন চাহিদা অনুযায়ী ঢাবির সি ইউনিটে মেধাতালিকায় নিজের নাম খুঁজে পেয়েছিলাম। প্রথমে আমি বিশ্বাস করতে পারিনি সে কারনেই আমি তিনবার রেজাল্ট চেক করেছিলাম।

ঢাবির ব্যাবসায় অনুষদে চান্স পেতে যা করনীয়

শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নয় যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাওয়ার ক্ষেত্রে আমি মনে করি শুধুমাত্র কোচিং সেন্টারের উপর নির্ভর না করে নিয়মিত লেখাপড়া করা উচিত এবং সেটি অবশ্যই রুটিন অনুযায়ী ধাপগুলো অনুসরন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আমি সময়ের ব্যাপারে অনেক বেশি সচেতন ছিলাম। আরো একটি ব্যাপারে বলব, কাজ পরিপূর্ন ভাবে শেষ করে পরের কাজটা শুরু করবে হবে, এটার জন্য ধৈর্য থাকা জরুরী। মোট কথা যে কোনো সফলতার ভীত গঠনে ধৈর্য এবং অধ্যবসায়ের ভুমিকা অনেক বেশি।

স্কুল জীবনে যা হতে চেয়েছিলাম

স্কুল জীবনে থেকেই তথ্য প্রযুক্তিতে খুব আগ্রহ ছিল। এসএসসির পর সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিউটে পরিক্ষা দিয়ে চান্সও পেয়ে ছিলাম। কিন্তু এ বিষয় নিয়ে লেখাপড়া করে বাংলাদেশে কিছু করা সম্ভব না এই জাতীয় ধারনা থেকেই এই বিষয়ে আর পা বাড়ানো হয়নি। তবে সেই সুপ্ত আগ্রহটি আজও হারিয়ে যায়নি। ভবিষ্যতে আইটি বিষয়ক উদ্যোক্তা হওয়ার ইচ্ছাটা প্রবল ভাবে মনের মধ্যে বাসা বেধে আছে। পড়াশোনার পাশাপাশি আমি মাস্তুল ও স্বেচ্ছাসেবক সদস্য হিসেবে কাজ করছি।

পরিশেষে বলবো, দেশের মেধাবীদের যদি দেশেই সঠিক মুল্যায়নের মাধ্যমে তাদের মেধাকে পরিপুর্ণরুপে কাজে লাগানে যায় তাহলে আমাদের প্রিয় জন্মভুমিকে উন্নতির শিখরে দেখতে বেশি দিন অপেক্ষা করতে হবে না।

মোঃ সুমন উদ্দীন

শিক্ষার্থী, মার্কেটিং বিভাগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

“আমার গল্প” বিভাগটা মুলত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালইয়ে অধ্যয়নরত কৃতী শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা প্রস্তুতির অভিজ্ঞতার গল্প। আপনার অভিজ্ঞতার গল্পটিও হতে পারে “ইয়ুথবিডির” আগামীর “আমার গল্প”

“আমার গল্প” বিভাগে লেখা পাঠানোর ঠিকানাঃ news.youthbd24@gmail.com

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0