তিনি নিজেকে অবরুদ্ধ রেখে কিসের বিপ্লব ঘটিয়েছেনঃ প্রধানমন্ত্রী



jpej imপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন তুলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া নিজেকে নিজে অবরুদ্ধ রেখে কিসের বিপ্লব ঘটিয়েছেন ? মানুষ পুড়িয়ে মারার রাজনীতি কিভাবে জনগণের জন্য হয় ?

শনিবার বিকেলে গাজীপুরের শ্রীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মাওনা ফ্লাইওভার উদ্বোধন শেষে স্থানীয় পিয়ার আলী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা জানান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিদের কাছে বেগম জিয়া নিজের বিবেককে বন্দি করে রেখেছেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অভিযুক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেত্রী গুলশানে ছিলেন। নিজেই নিজের অফিসে তালাবদ্ধ ছিলেন। একটি বাড়ির ভেতরে ৬৫ জন মানুষ নিয়ে ছিলেন। ৯২ দিন মানুষ পোড়ালেন। বাবার সামনে ছেলে, স্ত্রীর সামনে স্বামীকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে।

খালেদা জিয়া কেন মানুষ পুড়িয়ে মারলেন। আল্লাহ বলেছেন, মৃত্যুর পরে গুনাহগারকে দোজখের আগুনে পুড়িয়ে মারবেন। কিন্তু খালেদা জিয়া জীবিত মানুষকে পুড়িয়ে মারছেন। মানুষ পোড়ানোর রাজনীতি করা বিএনপিকে রক্ষায় অনেক অশিক্ষিত মাঠে নেমেছে বলেও অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

বিএনপি-জামায়াতের ‘জঙ্গিবাদী’ আন্দোলনে সমর্থন না দেওয়ায় জনগণকে ধন্যবাদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা আগুনে পুড়ে মানুষ মেরেছে, পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ মেরেছে, তারা একবার আগুনে আঙ্গুল রেখে দেখুক কেমন যন্ত্রণা। বাসে, সিএনজি, রেলগাড়ি এই সব যানবাহনে কারা চলে? সাধারণ মানুষ চলে। তারা সাধারণ মানুষ পোড়ানোর আন্দোলন করেছে। এ কেমন আন্দোলন?

এদিকে বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের অতীতের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফিরিস্তি তুলে ধরেন। একইসঙ্গে হাতে নেওয়া কর্মসূচি ও ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

রাজধানীর মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভারের কাজও খুব তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যাবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পায়রা সেতু, আড়িয়াল খাঁ সেতুসহ আরও তিনটি সেতু নির্মাণ শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে যাত্রাবাড়ী-কাঁচপুর সড়ক ৮ লেন করা হচ্ছে।

রেল মন্ত্রণালয়কে আলাদা করেছি। বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর রেল যোগাযোগ স্থাপন করেছি আমরা। পশ্চিমাঞ্চলে আরও ৬০টি সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া রয়েছে সম্প্রতি। সড়ক মেরামত করার জন্য জেলাভিত্তিক ১০টি কমিটি করেছি। বিআরটিসিতে ৯৯৮টি বাস সংযুক্ত করা হয়েছে। ঢাকা চট্টগ্রামে আধুনিক ট্যাক্সিও চালু করা হয়েছে। খবরঃ বাসস

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0