টাঙ্গাইলে চালু হলো প্ল্যান্ট ডক্টর ক্লিনিক



Madhupur-treeউদ্ভিদ ও ফসলের রোগব্যাধি সম্পর্কে সচেতনতা ও পোকামাকড়ের উপদ্রব থেকে রক্ষা করে ফলন বাড়ানোর লক্ষে টাঙ্গাইলে চালু হয়েছে এক অভিনব হাসপাতাল।

“প্ল্যান্ট ডক্টর ক্লিনিক” নামের এই হাসপাতালে উদ্ভিদ ও ফসলের বিভিন্ন সমস্যা, এবং আক্রান্ত নমুনা নিয়ে এলে, রোগাক্রান্ত পাতা, কাণ্ড ও গোঁড়ার সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধান দেবেন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কৃষিবিদরা।

প্রাথমিকভাবে টাঙ্গাইল সদর ও মধুপুর উপজেলার ভবানিটিকি বাজারে পরীক্ষামূলক ভাবে দুটি ক্লিনিক চালু হয়েছে।  কমনওয়েলথের আর্থিক সহযোগিতায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে জেলা কৃষি সম্পসারণ বিভাগ। বাংলাদেশে এ ধরনের ক্লিনিক প্রথমবারের মত চালু হলো।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন খান বিবিসিকে জানান, এ ক্লিনিকের মূল উদ্দেশ্য রোগাক্রান্ত উদ্ভিদে কীটনাশক প্রয়োগ না করে, প্রাকৃতিক উপায়ে পোকা দমন ও বালাই নিয়ন্ত্রণ করায় কৃষকদের উৎসাহিত করা।

কৃষকেরা বেশিরভাগ সময় এ ধরণের সমস্যা সমাধানে পরিবেশের জন্য ক্ষতিকারক কীটনাশক ব্যবহার করে, যা উপকারী পোকা মেরে ফেলে। এতে ফল এবং ফসলের পরাগায়ন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে ফলন ও বীজ তৈরির সম্ভাবনা হ্রাস পায়।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0