গণতন্ত্রের স্বার্থে সংবিধান সংস্কার জরুরি: নাগরিক সমাজ



sujonগণতন্ত্রের স্বার্থে সংবিধান সংস্কার জরুরি তাই সংবিধান সংস্কার কমিশন গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। উদ্বিগ্ন নাগরিক সমাজ আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা এসব কথা বলেন।

আজ মঙ্গলবার “পূর্ণ গণতন্ত্রের জন্য ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ ও ভারসাম্য” বিষয়ক বৈঠক রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

উদ্বিগ্ন নাগরিক সমাজ আহ্বায়ক ও সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ টি এম শামসুল হুদা তার আলোচনা  বলেন, যে সরকারই ক্ষমতায় আসছে, তারা গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোর দিকে নজর দেয় না, গত চারটি সরকারের অভিজ্ঞতায় এটা দেখা গেছে। সাবেক এই প্রধান নির্বাচন কমিশনার মনে করেন, এসব সরকার যেকোনো উপায়ে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নির্বাচনকে প্রাধান্য দিয়েছে।

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেন, রাজনীতিবিদদের অনেকেই মনে করেন, রাজনীতিবিদ ছাড়া রাজনীতি বা গণতন্ত্র নিয়ে কারও কথা বলার অধিকার নেই। তার মতে, সংবিধানের পরিবর্তন এবং সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো ক্রিয়াশীল করতে না পারলে ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ ও ভারসাম্য আসবে না।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাহদীন মালিক বলেন, রাষ্ট্রপতির পদটি এখন অপ্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে। প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান বিচারপতির নিয়োগ দেওয়াটাই রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা। কিন্তু এ দুটো ক্ষমতা অনেকটা স্বয়ংক্রিয় কাজ। কারণ, জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে প্রধান বিচারপতি নিয়োগ লাভ করবেন—এটাই স্বাভাবিক। আর নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন করবে—এটাও অনেকটা স্বয়ংক্রিয় বিষয়। অতএব, এখানে রাষ্ট্রপতির বেশি কিছু করণীয় নেই।

গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা গণতন্ত্রের স্বার্থে এই সংস্কার জরুরি বলে মত প্রকাশ করেন, পাশাপাশি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো কার্যকর ও ক্রিয়াশীল করার ওপরও গুরুত্ব দেন।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0