লন্ডনে ইউকে-বাংলাদেশ ই-কমার্স ফেয়ার



11896016_10152969807841825_3594804939911045676_nআগামী ১৩ ও ১৪ নভেম্বর লন্ডনের ই১ ৪টিটি, ৬৯-৮৯ মাইল ইন্ড রোডের ‘দ্য ওয়াটারলিলি’তে দ্বিতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হবে ইউকে-বাংলাদেশ ই-কমার্স ফেয়ার।

আইসিটি ডিভিশন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক অথরিটি ও কমপিউটার জগৎ এর যৌথ আয়োজনে লন্ডনে ইউকে-বাংলাদেশ ই-কমার্স মেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলাতে পার্টনার হিসেবে থাকবে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি শীর্ষস্থানীয় ট্রেড অ্যাসোসিয়েশন। এবং অরগানাইজিং পার্টনার হিসেবে থাকছে ধানসিঁড়ি কমিউনিকেশন লিমিটেড।

সোমবার বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর সেমিনার কক্ষে মেলা উপলক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এর অতিরিক্ত সচিব মো. হারুনুর রশিদ, কমপিউটার জগৎ এর সিইও মো. আব্দুল ওয়াহেদ তমাল, এফবিসিসিআই এর পরিচালক শাফকাত হায়দার চৌধুরী, ই-ক্যাব সভাপতি রাজিব আহমেদ, ডিসিসিআই মহাসচিব এএইচএম রেজাউল কবির, বাক্যর সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন এবং ধানসিঁড়ি কমিউনিকেশন লিমিটেডের এমডি শমী কায়সার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

মো. হারুনুর রশিদ বলেন, “বাংলাদেশে কম্পিউটার ইন্টারনেট এখন আর বিলাসিতা নয় বরং দৈনন্দিন জীবনের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের মাধ্যমে দেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে তথ্য প্রযুক্তির সুফল পৌছে দেবার জন্যে কাজ করছেন। ই-কমার্স এখন আমাদের সময়ের দাবি। অন্যান্য দেশের তুলনায় আমরা ই-কমার্সে পিছিয়ে রয়েছি কিন্তু আর নয়। এখন ই-কমার্সকে এগিয়ে নেবার সময় এসেছে এবং এ লক্ষ্যে সরকার এবং ব্যবসায়ী সংগঠনকে একসাথে কাজ করে যেতে হবে।”

এফবিসিসিআই এর পরিচালক শাফকাত হায়দার চৌধুরী বলেন, “দেশের বাইরে বাংলাদেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্যে বিশাল বাজার রয়েছে বিশেষ করে লন্ডনে। এখানে প্রচুর বাংলাদেশী বসবাস করেন যারা দেশে নিয়মিত আসেন এবং দেশ থেকে বিভিন্ন পণ্য ক্রয় করে থাকেন।

বাক্যর সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন বলেন, “লণ্ডনে বাংলাদেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের জন্যে বড় একটি বাজার রয়েছে। লন্ডনের প্রবাসী বাংলাদেশী কম্যুনিটির মধ্যে ই-কমার্স জনপ্রিয় করে তুলতে পারলে আমাদের ই-কমার্স ইণ্ডাস্ট্রি নিঃসন্দেহে অনেক দূর এগিয়ে যাবে।”

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ই-ক্যাব এর যুগ্ম সম্পাদক রেজওয়ানুল হক জামী, ডিরেক্টর (ইন্টারন্যাশ আফেয়ার্স) তানভির এ মিশুক, বাক্য কোষাধ্যক্ষ তানভীর ইব্রাহিম, মেট্রোনেট বাংলাদেশ লিমিটেড এর সিইও সৈয়দ আলমাস কবির এবং ধানসিঁড়ি কমিউনিকেশন লিমিটেডের সিইও হুসেইন শাহরিয়ার ।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0