তুরস্কের উপকূলে শিশুর মরদেহ: বিশ্বজুড়ে তীব্র সমালোচনা



aylan_newsতুরস্কের সমুদ্র উপকূলে একটি শিশুর মরদেহ পড়ে থাকার ছবি বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তীব্র সমালোচনা তুলেছে। ইউরোপের শরণার্থী সংকট কতটা গভীর এই ছবি সেটিই জানান দিচ্ছে।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে সমুদ্র সৈকতে লাল জামা গায়ে একটি ছোট শিশুর নিথর দেহ উপুড় হয়ে পড়ে আছে। তুরস্কের বদ্রুম উপকূলে সাগর সৈকত থেকে এই ছবি তুলেছে সে দেশের একটি বার্তা সংস্থা। এই ছবি বিশ্বজুড়ে অনেকের মাঝে বেদনা তৈরি করেছে।

এই শিশুর নাম আয়লান কুর্দি। পাঁচ বছর বয়স তার। নৌকাডুবির পর আয়লান কুর্দির মরদেহ সৈকতে ভেসে এসেছে।  তুর্কী কোস্ট গার্ড জানাচ্ছে, সিরিয়া থেকে আসা একদল শরণার্থী তুরস্ক হয়ে গতকাল গ্রিসের কস্ দ্বীপে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু যাত্রাপথে সাগরে নৌকাডুবিতে ১২ জন মারা যায়। পাঁচ বছর বয়সী আয়লান কুর্দি ছিল সেই দলে। নৌকা ডুবিতে সে তার মায়ের সাথে প্রাণ হারায়।

শিশুটির পরিবার সিরিয়ার কোবানে শহরে থাকতো। সেখানে আইএস জঙ্গীদলের সাথে সরকারি বাহিনীর লড়াই শুরু হওয়ার পর তারা পালিয়ে তুরস্কে আসে। সেখান থেকে ক্যানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করলে কর্তৃপক্ষ তাদের শরণার্থী আবেদন নাকচ করে দেয়। এরপর এরা তুরস্ক থেকে গ্রিসে পৌঁছানোর চেষ্টা করছিল। নৌকাডুবিতে পরিবারটি ১২ জন সদস্য মারা গেছেন। শুধু গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়ছে শিশুটির বাবা।

মধ্যপ্রাচ্য, বিশেষ করে সিরিয়া থেকে, স্রোতের মত ঢোকা অভিবাসীদের নিয়ে কি করা হবে, কিভাবে পরিস্তিতি সামাল দেয়া যাবে তা নিয়ে চরম মতভেদ তৈরি হয়েছে ইউরোপে। কিন্তু এই সব বাদানুবাদ ছাপিয়ে আয়লান কুর্দির মৃতদেহের ছবি বিশ্বজুড়ে গভীর আবেগের জন্ম দিয়েছে।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0