আল্লাহর কাছে প্রিয় গুনাহগারদের কান্নাকাটি



islam 2হাদিসে কুদছিতে আছে আল্লাহপাক বলেন- গুনাহগারদের কান্নাকাটির আওয়াজ তসবিহ জপকারীদের আওয়াজ অপেক্ষা আমার কাছে অধিক প্রিয় (তাফসির রুহুল মাআনী খণ্ড ৩০ পৃ. ৫৩৩)।

এ হাদিস শরিফ মূলত কোরআনে কারীমের ওই (১) আয়াতে কারীমারই প্রতিচ্ছবি এবং প্রতিধ্বনি যে (২) আয়াতে আল্লাহপাক পাপী বান্দাদের পাপসমূহ ক্ষমা করার সুসংবাদ দিয়েছেন। আল্লাহপাক বলেন, ‘আল্লাহ তওবাকারীকে ভালোবাসেন এবং যারা পবিত্র থাকে তাদেরও ভালোবাসেন’-(সূরা বাকারা : আয়াত-২২২)। অপর আয়াতে আল্লাহপাক বলেন, ‘হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহর কাছে তওবা কর বিশুদ্ধ তওবাই নিশ্চয় তোমাদের পতিপালক তোমাদের সৎকর্মগুলো মোচন করে দেবেন এবং তোমাদের দাখিল করবেন জান্নাতে, যার পাদদেশে নদী প্রবাহিত।’ (সূরা তাহরীম: আয়াত-৮)। অপর আয়াতে আল্লাহপাক বলেন ‘হে মুমিনগণ তোমরা সবাই আল্লাহপাকের কাছে তওবা কর নিশ্চয় তোমরা সফলকাম হবে।’ (সূরা নূর : আয়াত ৩১)।

উল্লিখিত আয়াতসমূহ ছাড়াও এমন অসংখ্য আয়াত রয়েছে যেসব আয়াতের সারমর্ম হলো গুনাহগার ব্যক্তি আল্লাহপাকের কাছে যখন নিজের গুনাহের জন্য ক্ষমা চায় আল্লাহপাক তাকে ক্ষমা করে দেন এবং নিজের প্রিয় বান্দা হিসেবে কবুল করে নেন। তাছাড়া হাদিস শরিফে রসুলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পাপী ব্যক্তির পাপ মোচনের সুসংবাদ দিয়েছেন। ইরশাদ হয়েছে : হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত যে মহানবী সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন গুনাহ থেকে যে ব্যক্তি তওবা করে সে এমন নিষ্পাপ হয়ে যায় যেন তার কোনো গুনাহই ছিল না (ইবনে মাজাহ্ হাদিস ৪২৫০ বায়হাকী, হাদিস ৭১৭৮ মুনযিরী, হাদিস-৪৫০৪)। অপর হাদিসে ইরশাদ হয়েছে : হজরত আনাস ইবনে মালেক (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আদম সন্তানের সবাই (কম বেশি) গুনাহগার। আর এ গুনাহগারদের মধ্যে তারাই শ্রেষ্ঠ যারা বেশি বেশি তওবা করে (তিরমিযী হাদিস ২৫০১, ইবনে মাজাহ হাদিস ৪২৫১, ইমাম হাকেম খ- ৪ পৃ. ২৪৪ মুনযিরী হাদিস-৪৫৯৬)। আল্লাহতায়ালা প্রত্যেক এমন পাপীর জন্যও তওবার দুয়ার খোলা রেখেছেন যে ব্যক্তি বারবার পাপ করছে। সুতরাং এমন ব্যক্তির জন্য এ পাপ পরিত্যাগপূর্বক কলুষমুক্ত জীবনে পরিবর্তিত করতে কোনো বাধা নেই, কেননা হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, পাপী ব্যক্তির পাপ যদি এতে অধিকও হয় যে, তা আকাশ ছুঁয়ে যায় তবুও সে যখন আল্লাহপাকের কাছে তওবা করে আল্লাহপাক তাকে ক্ষমা করে দেন। (ইবনে মাজাহ)।

 অপর হাদিসে ইরশাদ হয়েছে : হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আমি শুনেছি সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলতেন, আল্লাহপাক বলেছেন, হে আদম সন্তান যতক্ষণ পর্যন্ত তুমি আমার কাছে দোয়া করতে থাকবে এবং আমার কাছে আশা করতে থাকবে, তোমার যত গুনাহই হোক না কেন আমি তা মাফ করে দেব। আমি কারও পরোয়া করি না। হে আদম সন্তান! তোমার গুনাহ যদি আকাশের মেঘমালা পর্যন্ত পৌঁছে যায়, অতঃপর তুমি আমার কাছে ক্ষমা চাও আমি তোমাকে ক্ষমা করে দেব (তিরমিযী পৃষ্ঠা-১৯৪, খণ্ড-২)।

 

লেখক:

মুফতি মুহিউদ্দীন কাসেম,

পেশ ইমাম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0