দলীয় ১০ কর্মীকে পেটালো ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা বনী আমিন মোল্লা



bvgggদলীয় ১০ কর্মীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেছে ছাত্রলীগের ঢাবির জিয়া হলের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি ও ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স এর একান্ত সহযোগী বনী আমিন মোল্লা  ও তার অনুসারীরা। আহত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের ওই ১০ কর্মীকে মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।  এ ঘটনায় ক্ষোভ দেখা দিয়েছে ঢাবির ছাত্রলীগের মধ্যে।

এই সংবাদ জানাজানি হলে পুরো ক্যাম্পাসে সৃষ্টি হয়েছে তোলপাড়। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার সমাধিতে ফুল দিতে যাওয়া দেরি করার ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীদের পেটায় ঢাবির ছাত্রলীগের জিয়া হলের ওই নেতা।  জানা গেছে, শনিবার সকাল ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় জিয়া হল শাখার  ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বনী আমিন মোল্লাসহ তার কর্মীরা ওই ১০ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করে বলে জানা গেছে। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন: ঢাবির সমাজবিজ্ঞানের ২য় বর্ষের ছাত্র আশিক। একই শিক্ষাবর্ষের বাংলার আলমগীর, দর্শনের লিটন, আইআর ডিপার্টমেন্টের কামাল, ইংরেজির জুয়েল, ম্যানেজম্যান্ট অ্যান্ড ইনফরম্যাশন সিস্টেমের ফুয়াদ ও ফিরোজ, ফিন্যান্স’র শাহাদত ও সাগর এবং ডিপার্টমেন্টের ১ম বর্ষের ছাত্র মোশাররফ হোসেন।  এদের মধ্যে আশিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা সবাই জিয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের কর্মী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সকাল ৭টার দিকে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ৩ নেতার সমাধিতে ফুল দিতে আসার জন্য হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের নেতাকর্মীদের গেস্ট রুমে ডাকেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক বনী আমিন মোল্লা। এসময় কিছু কর্মী আসতে দেরি করায় বনী ও তার কর্মীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাদের এলোপাতাড়িভাবে বেধড়ক পেটাতে থাকেন।  বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। যদি এমন কর্মকাণ্ডের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকে, তার বিরুদ্ধে অবশ্যই সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0