দৃষ্টিহীন মাহবুব জয় করলেন বিসিএস



mahbubমানুষের জীবনে আনন্দঘন মুহূর্ত কখনো কখনো আসে বৈকি! দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী মাহবুবুর রহমান তখনো জানেন না, বহুদিন বাদে আজ আবার সেই বিরল মুহূর্তের মুখোমুখি হবেন তিনি। দিনটি ছিল ৩৪তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশের দিন।

প্রতিদিনের মতো সেদিনও সূর্য উঠেছিল, বাতাসে ছিল ধুলোর আস্তরণ, চারপাশ ছিল চিরচেনা-একঘেয়ে। কিন্তু মাহবুবুর যখন জানলেন ৩৪তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের তালিকায় শোভা পাচ্ছে তাঁর রোল নম্বর, তিনি নির্বাচিত হয়েছেন শিক্ষা ক্যাডারের তালিকায়, তখন সেই চিরচেনা পরিবেশটাই যেন হঠাৎ অচেনা হয়ে উঠল। তিনি দিব্যকানে শুনতে পেলেন চারপাশে বেজে উঠেছে মোহন বাঁশির সুর। সেই সুরে কাছে-দূরের সবাই জেনে গেছেন মাহবুবুর রহমানের কৃতিত্ব। ধন্যি ধন্যি পড়ে গেছে সারা দেশে!

তাঁর ছোটবেলা কেটেছে মৌলভীবাজারে। সেখানে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেছেন। এরপর সিলেটের জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে পাস করেন এইচএসসি। চলে আসেন ঢাকায়। যেভাবেই হোক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে হবে তাঁকে! মনের মধ্যে একটাই সংকল্প।
দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য কোচিংয়ের সুযোগ নেই। তাঁদের পড়ার উপযোগী কোনো গাইড বা লেকচারশিট কোথাও পাওয়া যায় না। এই সময় তার তিন বোন পড়া রেকর্ড করে দিত। সেই রেকর্ড শুনে শুনে পড়া আত্মস্থ করত মাহবুব।

এমন শ্রম বৃথা যায়নি মাহবুবুরের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। সুযোগ পান ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হওয়ার। এই বিভাগ থেকে সাফল্যের সঙ্গে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। তারপর শুরু হয় তাঁর নতুন সংগ্রাম—বিসিএস ক্যাডার হওয়ার স্বপ্ন।

এই স্বপ্ন তাঁর মনে বুনে দেন তাঁর এক পরিচিত বড় ভাই স্বপন। তিনি তিনবার বিসিএস মৌখিক পরীক্ষায় বসেছেন। প্রথমত, তাঁকে দেখেই বিসিএস ক্যাডার হওয়ার জন্য অনুপ্রাণিত হন। এরপর সবচেয়ে বেশি অনুপ্রেরণা পেয়েছেন পরিবারের কাছ থেকে। এ ছাড়া বন্ধুবান্ধব আর শিক্ষকদের সহযোগিতা আর অনুপ্রেরণাও সঙ্গে ছিল তাঁর।
খুব শিগগিরই ৩৪তম বিসিএসের গেজেট প্রকাশিত হবে। তখন ঝাঁপিয়ে পড়বেন কর্মযজ্ঞে। শিক্ষকতার মহান পেশায় যুক্ত হয়ে জাতি গঠনে ভূমিকা রাখবেন—এই সুখানুভূতি বারবার জল এনে দিচ্ছে দৃষ্টিহীন মাহবুবুরের চোখে।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0