দেশকে কতটা ভালবাসতে হয় দেখালেন অশ্বিন।



Ashinচেন্নাই যখন অতিবৃষ্টিতে দুর্যোগের মধ্যে পতিত, ইতিহাসের ভয়াবহ বন্যা যখন ভাসিয়ে নিচ্ছে গোটা শহরটা, তখন ভারতীয় অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন দিল্লিতে অসহায় বোধ করছিলেন তাঁর বাবা-মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট আর অশ্বিন সন্তর্পণে খোঁজ করে চলেছেন তাঁর বাবা-মা’র। বাবা-মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থাতেই তিনি ব্যাট হাতে মাঠে নামলেন। দলকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করলেন দারুণ এক ফিফটির সাহায্যে। অথচ ওই মুহূর্তে ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে অশ্বিন জানেন না তাঁর বাবা-মা আদৌ বেঁচে আছেন কি না!

ভেতরে-ভেতরে ব্যাপারটা নিয়ে প্রচণ্ড উৎকণ্ঠায় থাকলেও অশ্বিন পেশাদারির বরখেলাপ করেননি। এমনকি তিনি যে তাঁর বাবা-মায়ের জন্য উৎকণ্ঠিত, সেটা জানতেই পারেননি তাঁর সতীর্থেরা। অশ্বিনের স্ত্রী পৃথী অশ্বিন টুইটারে জানান, অশ্বিন যখন ভারতের হয়ে ব্যাট করছেন, ততক্ষণে ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে তাঁর বাবা-মা নিখোঁজ। পরে পৃথীর আরও এক টুইটারে অশ্বিন জানতে পারেন প্রবল বৃষ্টি ও বন্যার কারণে যোগাযোগটা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলেও তাঁর বাবা-মা সুস্থই আছেন।এতটা ভালবাসার মানুষ জগতে কমই খুজে পাওয়া যাবে যা অশ্বিন দেখালেন। বাবা- মাকে উপেক্ষা করে দেশকে ভালবাসা বেশি প্রধান্য দেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments
It's only fair to share...Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
0